খেলতে খেলতে

রহস্য গল্প থেকে সামাজিক কাহিনি, ভূতের গল্প থেকে অ্যাডভেঞ্চার — সবেতেই অদিতির কলমের সহজ চলন। স্বভাবতই এই গল্পসংকলনেও তাঁর এই বর্ণময় কাহিনিবিন্যাসের স্বাক্ষর বিদ্যমান। একদিকে যেমন পিসিমার তুখোড় বুদ্ধিতে অনায়াসে কঠিন সমস্যার সমাধান হয়ে যায়, তেমনই পাঠক জানতে উদগ্রীব হয়ে থাকেন চকোলেট চাইতে আসা বৃদ্ধ মানুষটির পরিচয়। জানতে ইচ্ছে হয় সেই গেরুয়াধারীটি সম্পর্কে, যিনি স্মিতহাস্যে তাকিয়ে থাকেন মর্নিংওয়াকে আসা এক ভদ্রলোকের দিকে। পাতা উলটোতে হয় রহস্যময় চিরকুট খুঁজে পাওয়া নির্বিরোধী দম্পতির শেষমেশ কী হল জানতে। এইভাবে ষোলোটি গল্পে সাজানো বইটি এক নিশ্বাসে পড়ে ফেলতে হয়।

বইটির নির্বাচিত অংশ পড়া যাবে এখানে।

149.00

10 in stock

SKU: 1635359022 Category:

Book Details

Pages

175 Pages

Publisher

Ha Ja Ba Ra La

Language

Bengali

Published on

January 2017

ISBN

978-1-63535-902-2

Cover and Illustration

সুমিত রায়

E-book Version

https://play.google.com/store/books/details?id=PKrHDgAAQBAJ

About The Author

অদিতি ভট্টাচার্য্য

অদিতি ভট্টাচার্য্য

অদিতি সংখ্যাতত্ত্ব নিয়ে পড়াশোনা করেছেন। বই পড়া, লেখালিখি, এমব্রয়ডারি, বেড়ানো, ছবি তোলা — পছন্দের তালিকায় রয়েছে এসবই। ছোটো বড়ো সবার জন্যেই লিখে চলেছেন নিয়মিত। লেখা প্রকাশিত হয়েছে আনন্দমেলা, এই সময়, সাপ্তাহিক বর্তমান, চির সবুজ লেখা, কিচিরমিচির, রঙবেরঙ, মাতৃমন্দির সংবাদ, ট্রৈনিক ইত্যাদি নানান পত্রিকায় এবং জয়ঢাক, ইচ্ছামতীর মতো ওয়েবজিনেও। ‘খেলতে খেলতে’ ছাড়া প্রকাশিত গল্পসংকলন ‘গল্পের খোঁজে’।

ছোটদের বই ছোটরা কি আর পড়ে? হ য ব র ল থেকে প্রকাশিত অদিতি ভট্টাচার্য্যর ‘খেলতে খেলতে’ পড়তে পড়তে এই বুড়ো বয়সেও নিজেকে ছোট মনে হচ্ছিল। বইটির প্রচ্ছদ, বাঁধাই, ছাপা মনকাড়া। আমি লেখিকাকে চিনি না। সত্যি বলতে কী, বইটির ঝকঝকে প্রোডাকশান দেখেই এই বইমেলায় হাতে তুলে নিয়েছিলাম। বলাই বাহুল্য, ঠকিনি।

প্রথম গল্প ‘বাঘের ডাক’। এক গ্রামে হঠাৎ বাঘের ডাক শোনা যেতে থাকল। এলাকার মানুষজন স্বাভাবিকভাবেই আতঙ্কে দিশেহারা। সত্যি বলতে কী, গল্পের প্লট এমন কিছু অজানা নয়। কিন্তু অদিতির পরিবেশনা, তাঁর নিপুণ গদ্য পাঠককে ধরে রাখে গল্পের শেষ পর্যন্ত। সব গল্পের ক্ষেত্রেই কমবেশি এই ব্যাপারটা খাটে। অদিতি সুন্দর গল্প বলেন। তাই মোটামুটি চেনা ধাঁচও তাঁর গল্পে নতুন করে অন্য মাত্রা খুঁজে পায়। যেমন বইটির নামগল্প। খেলার ছলে চিঠি লিখতে লিখতেই এক কিশোর কীভাবে একটা বড় চক্রান্ত বানচান করে দেয়, তা বেশ উপভোগ্য। এই প্রসঙ্গেই আসে পিসিমণির কথা। নীলুর পিসিমণি উপস্থিত বুদ্ধি, তীক্ষ্ণ পর্যবেক্ষণে অপরাধের কিনারা করেন। পিসিমণির তিনটি গল্প আছে এই সংকলনে। আশা করা যায়, এই চরিত্রকে কেন্দ্র করে আরও অনেক কাহিনি আমরা ভবিষ্যতে পাব।

ভূতের গল্পে বাঙালির আকর্ষণ দুর্নিবার। সেদিক থেকে অবশ্য এই সংকলনের ভূতের গল্প দুটি পড়ে আমার মন ভরেনি। বরং সামাজিক যে গল্পগুলো আছে, যেমন ধরা যাক ‘মাশুল’, ‘নলে’ বা ‘কাঠের ঘোড়া’, সেগুলো যথেষ্ট উপভোগ্য। ‘চিন্টু ওস্তাদ’ পড়ে মনে মনে বেশ হেসেছি। আমাদের সকলের জীবনেই এমন ঘটনা বিরল নয়, আর সেইজন্যেই ছোটবেলাটা আমরা ফিরে ফিরে দেখি। লেখিকাকে বিশেষ ধন্যবাদ এমন করে সেই দায়িত্ব নেওয়ার জন্যে।

বইটিতে মোট ষোলোটি গল্প আছে। প্রতিটি গল্পের সঙ্গে যথাযথ ছবি এঁকেছেন সুমিত রায়। সুমিতবাবুর প্রচ্ছদ ও ইলাস্ট্রেশান বইটিকে আকর্ষণীয় করে তুলেছে। আশা করা যায়, আমার মতো বুড়ো-আধবুড়োদের সঙ্গে সঙ্গে বইটি বয়সে যারা ছোট, তাদেরও ভালো লাগবে।

— মতিয়ার রহমান (পাইনকোন ডট কম-এ প্রকাশিত)

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “খেলতে খেলতে”

Your email address will not be published. Required fields are marked *